Trending Bangla Blogs

ফোসকা দূর করার সহজ কিছু উপায়

20

ফোসকা দূর করার সহজ কিছু উপায়

আজকের আর্টিকেলে আমরা আলোচনা করবো ফোসকা দূর করার সহজ কিছু উপায়

নিয়ে। সবাই মনোযোগ দিয়ে পড়ুন আর শেয়ার করে দিন বন্ধুদের মাঝে।

আমাদের পায়ে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কারণে ফোসকা পড়ে। এর নির্দিষ্ট কোনও সময় থাকে না। তবে গরম আর বর্ষায় ফোসকা পড়ার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি থাকে। তবে তা দূর করার বেশ কিছু সহজ উপায় আছে। বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপায়ে ঘরে বসেই ফোসকা দূর করা সম্ভব, যা শরীরের কোনও রকম ক্ষতি করে না। ফোসকা দূর করার সহজ ঘরোয়া উপায় গুলো জেনে নিনঃ

১) অ্যালোভেরা এর মাধ্যমেঃ
অ্যালভেরা আমাদের ত্বকের যেকোনও ধরণের সমস্যার সমাধান করতে পারে। অ্যালোভেরা ঠাণ্ডা হওয়ায় ফোসকার জ্বালাভাব দূর করতে সাহায্য করে। ফোসকায় কিছুটা অ্যালোভেরা লাগিয়ে শুকিয়ে ফেলুন। এর ফলে কিছুক্ষণের জন্য জ্বালা বা চুলকানি দেখা দেবে। কিন্তু এর ফলেই ফোসকা সেরে যাবে। শুকিয়ে যাওয়ার পর গরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন। যতদিন পর্যন্ত না নির্মূল হয় দিনে দুইবার একই পদ্ধতি অবলম্বন করুন।

২) গ্রিন টি এর টি ব্যাগ প্রয়োগঃ
গ্রিন টিতে অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি এবং হিলিং উপাদান থাকে। এছাড়া এতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন থাকায় তা ব্যথা কমাতে, সর্বোপরি ফোসকার জ্বালা কমাতে সাহায্য করে। গরম পানিতে একটা গ্রিন টি’র ব্যাগ ভিজিয়ে এর মধ্যে বেকিং সোডা যোগ করুন। এরপর টি ব্যাগ ঠাণ্ডা হলে ফোসকার ওপর প্রয়োগ করুন। বেকিং সোডায় অ্যান্টিসেপ্টিক উপাদান থাকে, যা ইনফেকশন হতে দেয় না। দিনে দুই-তিনবার এই পদ্ধতি অবলম্বন করুন।

৩) অ্যাপেল সিডার ভিনেগার প্রয়োগঃ
ফোসকা দূর করার অন্যতম সহজ উপায়। অ্যাপেল সিডার ভিনেগারে তুলো ভিজিয়ে ফোসকায় লাগিয়ে শুকানোর পর ধুয়ে ফেলতে হবে। অ্যাপেল সিডার ভিনিগার লাগালে জ্বালা করতে পারে। কিন্তু এই পদ্ধতি অবলম্বনে তিন-চার দিনের মধ্যেই ফোসকা সেরে যায়।

৪) ক্যাস্টার ওয়েল প্রয়োগঃ
চুল বড় করতে, ঠোঁট সুন্দর করতে ক্যাস্টার ওয়েল ব্যবহার করা হয়। ফোসকা দূর করতেও ক্যাস্টার ওয়েল সাহায্য করে। রাতে ঘুমানোর আগে ফোসকায় তা লাগিয়ে শুলে সকালে উঠেই দেখতে পাবেন সেরে গেছে। এছাড়া অর্ধেক ক্যাস্টার ওয়েল এবং অর্ধেক সাদা ভিনেগার মিশিয়ে দিনে দুই-তিনবার ফোসকায় লাগালে সহজে দূর হয়।

৫) পেট্রোলিয়াম জেলি প্রয়োগঃ
ফাটা ঠোঁট ছাড়া পেট্রোলিয়াম জেলি ফোসকা দূর করতেও সাহায্য করে। রাতে ঘুমানোর আগে ফোসকায় তা লাগান। এর ফলে শুষ্কভাব এবং জ্বালা দূর হবে। এছাড়া আপনি গরম পানিতে ১৫ মিনিট পা ভিজিয়ে, শুকনো কাপড়ে মুছে পেট্রোলিয়াম জেলি লাগাতে পারেন। গরম পানি ব্যথা কমাবে এবং ইনফেকশন দূর করবে আর পেট্রোলিয়াম জেলি পায়ের আর্দ্রতা বজায় রাখতে সাহায্য করবে।

আর্টিকেল টি পড়ে ভালো লাগলে শেয়ার করে দিন বন্ধুদের মাঝে।

Comments are closed.