Trending Bangla Blogs

ভারতের পর এবার টিকটক নিষিদ্ধ করবে আমেরিকা

14

ভারতের পর এবার টিকটক নিষিদ্ধ করবে আমেরিকা

অধিগ্রহণে এগিয়ে এল মাইক্রোসফট

রাষ্ট্রপতি ট্রাম্প হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের বলেন, “আমরা টিকটকের দিকে নজর দিচ্ছি। আমরা টিকটককে নিষিদ্ধ করতে পারি।”

প্রযুক্তি জগতের বিশাল নাম মাইক্রোসফট টিকটকের মার্কিন কার্যক্রম অধিগ্রহণের জন্য অগ্রিম আলোচনা শুরু করেছে বলেই শুক্রবার জানিয়েছে মার্কিন এক গণমাধ্যমের প্রতিবেদন! এমনকি মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পও জানিয়েছেন যে তাঁর প্রশাসন চিনের ভিডিও অ্যাপটি নিষিদ্ধ করার বিষয়ে বিবেচনা করছে। রাষ্ট্রপতি ট্রাম্প হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের বলেন, “আমরা টিকটকের দিকে নজর দিচ্ছি। আমরা টিকটককে নিষিদ্ধ করতে পারি।” ভারত টিকটক সহ ১০৬ টি চিনা অ্যাপকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে, প্রশাসন এবং আইন প্রণেতাদের দু’ পক্ষই এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে।

“আমরা হয়ত আরও অন্য কিছু কাজও করব। বেশ কয়েকটি বিকল্প রয়েছে, কিন্তু অনেক কিছুই ঘটছে, তাই আমরা কী হবে তা দেখব। তবে টিকটকের বদলে আমরা অনেক বিকল্পের সন্ধানে রয়েছি,” একটি প্রশ্নের জবাবে বলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

শুক্রবার রাতে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানিয়েছে যে টিকটকের মার্কিন পরিচালনা ক্ষমতা অর্জনের জন্য ভারতীয়-আমেরিকান সত্য নাদেল্লার নেতৃত্বে মাইক্রোসফ্ট প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে। এই চুক্তি কয়েক বিলিয়ন ডলারের হতে পারে।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানিয়েছে, “এই বিষয়টি সম্পর্কে ঘনিষ্ঠ সূত্রের মতে খবর, একটি চুক্তি সোমবারের মধ্যেই চুড়ান্ত হতে পারে এবং মাইক্রোসফ্ট, বাইটড্যান্স এবং হোয়াইট হাউসের প্রতিনিধিদের সঙ্গে এই আলোচনা চলছে। আলোচনার বিষয়টি তাত্পর্যপূর্ণ এবং একসঙ্গে কোনও চুক্তি নাও হতে পারে।”

চিনের বাইটড্যান্স টিকটকের মূল সংস্থা।

সাম্প্রতিক সপ্তাহে, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও টিকটকের বিরুদ্ধে আমেরিকানদের ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করার অভিযোগ তুলেছেন। তিনি বৃহস্পতিবার হাউস ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটির সদস্যদের বলেন, “টিকটক সহ ১০৬ টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে ভারত, যা ভারতের নাগরিকদের গোপনীয়তা এবং সুরক্ষাকে ঝুঁকির মুখে ফেলছিল।”

সূত্রের খবর, ট্রাম্প প্রশাসন শিগগিরই টিকটকের মার্কিন পরিচালনার মালিকানা হস্তান্তর করতে বাইটড্যান্সকে আদেশ দেবে।

“বর্তমান রূপে টিকটক ব্যক্তিগত গোপনীয়তা এবং আমাদের জাতীয় সুরক্ষার জন্য একটি আশঙ্কারই প্রতিনিধিত্ব করে। আমি এই গুরুতর পদক্ষেপ করার জন্য ট্রাম্প প্রশাসনের প্রশংসা করি, তবে বাইটড্যান্সকে সরানোর চেয়ে আমাদের আরও বেশি কিছু করা উচিত,” বলেন সেনেটর মার্কো রুবিও।

Comments are closed.